মাছের চর্বি খেতে পছন্দ করেন? তাহলে পড়ুন

0
6

আমাদের প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় মাছ অন্যতম। নিজেদের পছন্দ অনুযায়ী আমরা মাছ খেয়ে থাকি। মাছের চর্বি (তেল) খেতে অনেকে পছন্দ করেন। আবার অনেকে পছন্দ করেন না। তবে কথা হচ্ছে মাছের এই চর্বি স্বাস্থ্যের জন্য কতটা উপকার?

মাছে রয়েছে প্রচুর পুষ্টি। মাছের চর্বি মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর না। তবে মাংসের চর্বি বেশি খেলে স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়। নিয়মিত তেলযুক্ত মাছ খেলে হৃদরোগের আশঙ্কা এক-তৃতীয়াংশ কমে যায়। ফলে হৃদরোগ প্রতিরোধে খুবই কার্যকর ঔষধ মাছের চর্বি।

খাদ্যতালিকায় সপ্তাহে অন্তত দু্ই থেকে তিন দিন চর্বিযুক্ত মাছ বা মাছের চর্বি খাওয়া উচিত। এমন তথ্য দিয়েছে আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশন।

বলা হয়েছে, তেলযুক্ত মাছে অনেক পুষ্টিগুণ থাকে। আর মাংসের চর্বির মতো এটা ক্ষতিকর নয়। তাই সপ্তাহে ২-৩দিন খাবারের তালিকায় রাখুন মাছ।

মাছের চর্বিতে রয়েছে, ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিডের চমৎকার উৎস, যেটা চর্বির ক্ষতিকর উপাদানমুক্ত। এতে আছে ডিএইচএ। এটি রক্তনালিতে রক্ত জমাট বাঁধতে বাধা দেয়, নির্বিঘ্নে রক্ত সরবরাহ করে এবং রক্তের ক্ষতিকর চর্বিকে রক্তনালিতে জমতে বাধার সৃষ্টি করে।

মানবদেহে ক্যান্সারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে মাছের চর্বি। ক্যালসিয়ামের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস বলা হয়ে থাকে ছোট কাঁটাযুক্ত মাছকে। এ ছাড়া মাছে আমিষ ও ওমেগা-৩ চর্বির পাশাপাশি রয়েছে গুরুত্বপূর্ণ খনিজ উপাদান, সেলেনিয়াম, ম্যাঙ্গানিজ ও ফসফরাস, যা দাঁত, পেশি ও হাঁড়ের গঠনে ভূমিকা রাখে।

ছোট-বড় উভয় মাছে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান, যা ক্যান্সার, দীর্ঘমেয়াদি প্রদাহজনিত রোগ, আর্থ্রাইটিস রোধে সাহায্য করে, পাশাপাশি ত্বক ভালো রাখে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here